ঢাকা ০২:৩১ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৯ জুন ২০২৪

ফেরানো হল মিয়ানমারের ১৩৪ নাগরিককে, ফিরলো ৪৫ বাংলাদেশি

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৪:০৬:৫১ অপরাহ্ন, রবিবার, ৯ জুন ২০২৪ ৩৪ বার পড়া হয়েছে
দৈনিক গনমুক্তি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

 

মিয়ানমার থেকে পালিয়ে বাংলাদেশে এসে আশ্রয় নিয়েছিলো ১৪৫ বিজিপি ও সেনা সদস্যসহ ১৪৫ জন। পালিয়ে আসা নিরাপত্তা বাহিনীর ১৪৫ নাগরিককে রোববার ( ৯ জুন) মিয়ানমারে ফেরত পাঠানো হয়েছে।

একই সঙ্গে ৪৫ জন বাংলাদেশি দেশে ফিরে এসেছে। বাংলাদেশি এসব নাগরিকরা মিয়ানমারে বিভিন্ন মেয়াদে কারাভোগ শেষে ফিরে আসে।

এদিন কঠোর নিরাপত্তার মধ্য দিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নেওয়া ১৩৪ জন বিজিপি ও সেনা সদস্যকে কক্সবাজার শহরের বাঁকখালী নদীর মোহনা সংলগ্ন নুনিয়াছড়াস্থ বিআইডব্লিটিএ-এর জেটিঘাটে নিয়ে আসা হয়।

এরপর প্রক্রিয়া শেষে বিজিপি ও সেনা সদস্যদের নিয়ে বাংলাদেশ নৌ-বাহিনীর দুইটি টাগবোট বিআইডব্লিটিএ ঘাট থেকে সাগরে জলসীমার শূন্যরেখায় অবস্থানকারী মিয়ানমার নৌ-বাহিনীর জাহাজে তাদের তুলে দেওয়া হবে। সেখান থেকে জাহাজটি মিয়ানমারের উদ্দেশে রওনা দেয়।

এসময় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, বিজিবি, জেলা প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসন, জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ ও কোস্ট গার্ডের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা বাংলাদেশস্থ মিয়ানমারের দূতাবাসের প্রতিনিধি দলের সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

মিয়ানমারের কারাগারে বিভিন্ন মেয়াদে সাজা শেষে দেশে ফেরত আসতে ৪৫ বাংলাদেশি নাগরিক। পুরো কার্যক্রম শেষে বাংলাদেশে নিযুক্ত মিয়ানমারের রাষ্ট্রদূত অং কিউ মোয়েসহ প্রতিনিধি দলকে বিদায় জানায় উপস্থিত কর্মকর্তারা।

এ বিষয়ে কক্সবাজারের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মো. ইয়ামিন হোসেন বলেন, বিভিন্ন সময় মিয়ানমারের বাহিনীর হাতে আটক শেষে কারাভোগ শেষ করা ৪৫ বাংলাদেশি দেশে ফিরেছেন। ফেরত আসাদের মধ্যে কক্সবাজার, নরসিংদী ও নারায়ণগঞ্জ জেলার বাসিন্দা রয়েছেন। একইসঙ্গে মিয়ানমারে সংঘাতের জেরে পালিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নেওয়া ১৩৪ জন বিজিপি ও সেনা সদস্যকে ফেরত পাঠানো হয়েছে।

২৫ এপ্রিল ও ১৫ ফেব্রুয়ারি দুই দফায় ৬১৮ জনকে ফেরত পাঠায় বাংলাদেশ। একই সঙ্গে গত ২৫ এপ্রিল মিয়ানমার থেকে ফেরত আনা হয়েছে আরও ১৭৩ বাংলাদেশিকে। আর গত ১৫ ফেব্রুয়ারি বাংলাদেশে আশ্রয় নেওয়া ৩৩০ জন মিয়ানমার সীমান্তরক্ষী বাহিনী বিজিপি, সেনা ও কাস্টমস কর্মকর্তাকে স্বদেশে ফেরত পাঠায় বাংলাদেশ।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

ফেরানো হল মিয়ানমারের ১৩৪ নাগরিককে, ফিরলো ৪৫ বাংলাদেশি

আপডেট সময় : ০৪:০৬:৫১ অপরাহ্ন, রবিবার, ৯ জুন ২০২৪

 

মিয়ানমার থেকে পালিয়ে বাংলাদেশে এসে আশ্রয় নিয়েছিলো ১৪৫ বিজিপি ও সেনা সদস্যসহ ১৪৫ জন। পালিয়ে আসা নিরাপত্তা বাহিনীর ১৪৫ নাগরিককে রোববার ( ৯ জুন) মিয়ানমারে ফেরত পাঠানো হয়েছে।

একই সঙ্গে ৪৫ জন বাংলাদেশি দেশে ফিরে এসেছে। বাংলাদেশি এসব নাগরিকরা মিয়ানমারে বিভিন্ন মেয়াদে কারাভোগ শেষে ফিরে আসে।

এদিন কঠোর নিরাপত্তার মধ্য দিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নেওয়া ১৩৪ জন বিজিপি ও সেনা সদস্যকে কক্সবাজার শহরের বাঁকখালী নদীর মোহনা সংলগ্ন নুনিয়াছড়াস্থ বিআইডব্লিটিএ-এর জেটিঘাটে নিয়ে আসা হয়।

এরপর প্রক্রিয়া শেষে বিজিপি ও সেনা সদস্যদের নিয়ে বাংলাদেশ নৌ-বাহিনীর দুইটি টাগবোট বিআইডব্লিটিএ ঘাট থেকে সাগরে জলসীমার শূন্যরেখায় অবস্থানকারী মিয়ানমার নৌ-বাহিনীর জাহাজে তাদের তুলে দেওয়া হবে। সেখান থেকে জাহাজটি মিয়ানমারের উদ্দেশে রওনা দেয়।

এসময় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, বিজিবি, জেলা প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসন, জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ ও কোস্ট গার্ডের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা বাংলাদেশস্থ মিয়ানমারের দূতাবাসের প্রতিনিধি দলের সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

মিয়ানমারের কারাগারে বিভিন্ন মেয়াদে সাজা শেষে দেশে ফেরত আসতে ৪৫ বাংলাদেশি নাগরিক। পুরো কার্যক্রম শেষে বাংলাদেশে নিযুক্ত মিয়ানমারের রাষ্ট্রদূত অং কিউ মোয়েসহ প্রতিনিধি দলকে বিদায় জানায় উপস্থিত কর্মকর্তারা।

এ বিষয়ে কক্সবাজারের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মো. ইয়ামিন হোসেন বলেন, বিভিন্ন সময় মিয়ানমারের বাহিনীর হাতে আটক শেষে কারাভোগ শেষ করা ৪৫ বাংলাদেশি দেশে ফিরেছেন। ফেরত আসাদের মধ্যে কক্সবাজার, নরসিংদী ও নারায়ণগঞ্জ জেলার বাসিন্দা রয়েছেন। একইসঙ্গে মিয়ানমারে সংঘাতের জেরে পালিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নেওয়া ১৩৪ জন বিজিপি ও সেনা সদস্যকে ফেরত পাঠানো হয়েছে।

২৫ এপ্রিল ও ১৫ ফেব্রুয়ারি দুই দফায় ৬১৮ জনকে ফেরত পাঠায় বাংলাদেশ। একই সঙ্গে গত ২৫ এপ্রিল মিয়ানমার থেকে ফেরত আনা হয়েছে আরও ১৭৩ বাংলাদেশিকে। আর গত ১৫ ফেব্রুয়ারি বাংলাদেশে আশ্রয় নেওয়া ৩৩০ জন মিয়ানমার সীমান্তরক্ষী বাহিনী বিজিপি, সেনা ও কাস্টমস কর্মকর্তাকে স্বদেশে ফেরত পাঠায় বাংলাদেশ।