ঢাকা ০৭:১১ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১২ জুলাই ২০২৪

বাঙালি জাতি নিজের ভাষার জন্য জীবন উৎসর্গ করেছে: প্রধানমন্ত্রী

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৭:৫০:২৮ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ ২০৮ বার পড়া হয়েছে
দৈনিক গনমুক্তি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

 

স্মার্ট হতে গেলে ইংরেজিতে কথা বলতে হবে তা ঠিক নয়

কর্মক্ষেত্রের প্রয়োজনে অনেক ভাষা শেখা দরকার

শিক্ষার মাধ্যম মাতৃভাষায় হওয়া উচিত

 

গণমুক্তি রিপোর্ট

বাঙালি জাতি নিজের ভাষার জন্য জীবন উৎসর্গ করেছে। মাতৃভাষাকে রক্ষা, চর্চা মাধ্যমে আরও শক্তিশালী করে শিল্পকলা, সাহিত্য অনুবাদ করে সারাবিশে^ ছড়িয়ে দিতে হবে। বাঙালি জাতি নিজের ভাষার জীবন করে গিয়েছেন, তা মানুষের সামনে তুলে ধরাটা সকলের কর্তব্য। আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউট থেকে এমনটিই প্রত্যাশা করি।

বুধবার শহিদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে চার দিনের অনুষ্ঠানমালার উদ্বোধনী ভাষণে একথা বলেন বাংলাদেশের
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

বাংলা একাডেমী এবং আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউটকে একে অপরের পরিপূরক। তাই এই দুটো প্রতিষ্ঠান একসঙ্গে কাজ করতে হবে। এই বিষয়টি মাথায় রেখেই আমরা যখন আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউট প্রতিষ্ঠা করি। তিনি বলেন, নিজের ভাষা ও সংস্কৃতি রক্ষার মাধ্যমেই জাতি উন্নত জীবন পেতে পারে।

শেখ হাসিনা বলেন, ৭৫-এর পর মুক্তিযুদ্ধ ও ভাষা আন্দোলনের ইতিহাস মুছে ফেলার চেষ্টা করা হয়। কিন্তু এখন আর সেদিন নেই, ইতিহাস আপন আলোয় উদ্ভাসিত।

স্মার্ট হতে গেলে ইংরেজিতে কথা বলতে হবে তা ঠিক নয়। তবে কর্মক্ষেত্রের প্রয়োজনে অনেক ভাষা শেখা দরকার। শিক্ষার মাধ্যম মাতৃভাষায় হওয়া উচিত। সঙ্গে শিশুদের আরও দু-তিনটি ভাষা শেখানোর দরকার। বাংলাকে সারা বিশ্বে আন্তর্জাতিক পর্যায়ে নিয়ে যেতে হবে। এজন্য আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউট ও বাংলা একাডেমিকে একসঙ্গে কাজ করতে হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

বাঙালি জাতি নিজের ভাষার জন্য জীবন উৎসর্গ করেছে: প্রধানমন্ত্রী

আপডেট সময় : ০৭:৫০:২৮ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

 

স্মার্ট হতে গেলে ইংরেজিতে কথা বলতে হবে তা ঠিক নয়

কর্মক্ষেত্রের প্রয়োজনে অনেক ভাষা শেখা দরকার

শিক্ষার মাধ্যম মাতৃভাষায় হওয়া উচিত

 

গণমুক্তি রিপোর্ট

বাঙালি জাতি নিজের ভাষার জন্য জীবন উৎসর্গ করেছে। মাতৃভাষাকে রক্ষা, চর্চা মাধ্যমে আরও শক্তিশালী করে শিল্পকলা, সাহিত্য অনুবাদ করে সারাবিশে^ ছড়িয়ে দিতে হবে। বাঙালি জাতি নিজের ভাষার জীবন করে গিয়েছেন, তা মানুষের সামনে তুলে ধরাটা সকলের কর্তব্য। আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউট থেকে এমনটিই প্রত্যাশা করি।

বুধবার শহিদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে চার দিনের অনুষ্ঠানমালার উদ্বোধনী ভাষণে একথা বলেন বাংলাদেশের
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

বাংলা একাডেমী এবং আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউটকে একে অপরের পরিপূরক। তাই এই দুটো প্রতিষ্ঠান একসঙ্গে কাজ করতে হবে। এই বিষয়টি মাথায় রেখেই আমরা যখন আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউট প্রতিষ্ঠা করি। তিনি বলেন, নিজের ভাষা ও সংস্কৃতি রক্ষার মাধ্যমেই জাতি উন্নত জীবন পেতে পারে।

শেখ হাসিনা বলেন, ৭৫-এর পর মুক্তিযুদ্ধ ও ভাষা আন্দোলনের ইতিহাস মুছে ফেলার চেষ্টা করা হয়। কিন্তু এখন আর সেদিন নেই, ইতিহাস আপন আলোয় উদ্ভাসিত।

স্মার্ট হতে গেলে ইংরেজিতে কথা বলতে হবে তা ঠিক নয়। তবে কর্মক্ষেত্রের প্রয়োজনে অনেক ভাষা শেখা দরকার। শিক্ষার মাধ্যম মাতৃভাষায় হওয়া উচিত। সঙ্গে শিশুদের আরও দু-তিনটি ভাষা শেখানোর দরকার। বাংলাকে সারা বিশ্বে আন্তর্জাতিক পর্যায়ে নিয়ে যেতে হবে। এজন্য আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউট ও বাংলা একাডেমিকে একসঙ্গে কাজ করতে হবে।