ঢাকা ০৩:৩৬ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৪ জুলাই ২০২৪

পানির প্লান্ট চালুর দাবিতে ইবি শিক্ষার্থীদের মানববন্ধন

ইবি প্রতিনিধি
  • আপডেট সময় : ০৮:০৮:০১ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ ১৮৪ বার পড়া হয়েছে
দৈনিক গনমুক্তি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

 

ক্যাম্পাসে নিরাপদ পানি নাই সরবরাহে দীর্ঘদিনের বন্ধ পানির প্লান্ট চালুর দাবিতে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেছে, ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে (ইবি) শিক্ষার্থীরা। বুধবার (২৮ ফেব্রুয়ারি) সকালে প্রশাসন ভবনের সামনে সাধারণ শিক্ষার্থীদের ব্যানারে এ কর্মসূচি পালন করা হয়। এসময় শিক্ষার্থীরা প্রশাসনকে ২৪ ঘন্টা সময় বেঁধে দেন।

সততা ফোয়ারা বন্ধ কেন প্রশাসন জবাব চাই, মেরুদণ্ডহীন প্রশাসন জবাব চাই, ভিসির দুয়ারে টোকা মারুন সততা ফোয়ারা চালু করুন, নিরাপদ পানি নিশ্চিত করুন অব্যবস্থাপনার মুখে তালা মারুন ইত্যাদি শ্লোগান দিতে দেখা যায়।

শাখা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি বনি আমিন বলেন, ক্যাম্পাসে কিছু দূর্নীতিবাজ মানুষদের দুর করে একটি সুন্দর পরিবেশ তৈরি করতে চাই। যারা ক্যাম্পাসের পরিবেশ নষ্ট করতে চায় তাদের শক্ত হাতে জবাব দেব।

এবিষয়ে সহকারী প্রোক্টর আমজাদ হোসেন বলেন, ওদের ব্যানারে শুধু প্রশাসন ভবনের সামনে অবস্থানের ব্যাপারটি উল্লেখ ছিল। ভিসির কার্যালয়ের সামনে অবস্থান করার বিষয়টি আমার বোধগম্য হয়নি। ভিসি উক্ত ফোয়ারা ও পানির প্লান্ট সংস্কারের জন্য প্রকৌশলীকে নির্দেশ দিয়েছেন।

মানববন্ধন শেষে শিক্ষার্থীরা উপাচার্যের কার্যালয়ে যেতে চাইলে প্রক্টরিয়াল বডি তদেরকে বাধা দেন। এসময় প্রক্টরিয়াল বডির সাথে বাকবিতন্ডায় জড়ান মানববন্ধনকারীরা। ২৪ ঘন্টার মধ্যে সমস্যা সমাধান না হলে কঠোর আন্দোলনের হুমকি দেওয়া হয়।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

পানির প্লান্ট চালুর দাবিতে ইবি শিক্ষার্থীদের মানববন্ধন

আপডেট সময় : ০৮:০৮:০১ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

 

ক্যাম্পাসে নিরাপদ পানি নাই সরবরাহে দীর্ঘদিনের বন্ধ পানির প্লান্ট চালুর দাবিতে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেছে, ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে (ইবি) শিক্ষার্থীরা। বুধবার (২৮ ফেব্রুয়ারি) সকালে প্রশাসন ভবনের সামনে সাধারণ শিক্ষার্থীদের ব্যানারে এ কর্মসূচি পালন করা হয়। এসময় শিক্ষার্থীরা প্রশাসনকে ২৪ ঘন্টা সময় বেঁধে দেন।

সততা ফোয়ারা বন্ধ কেন প্রশাসন জবাব চাই, মেরুদণ্ডহীন প্রশাসন জবাব চাই, ভিসির দুয়ারে টোকা মারুন সততা ফোয়ারা চালু করুন, নিরাপদ পানি নিশ্চিত করুন অব্যবস্থাপনার মুখে তালা মারুন ইত্যাদি শ্লোগান দিতে দেখা যায়।

শাখা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি বনি আমিন বলেন, ক্যাম্পাসে কিছু দূর্নীতিবাজ মানুষদের দুর করে একটি সুন্দর পরিবেশ তৈরি করতে চাই। যারা ক্যাম্পাসের পরিবেশ নষ্ট করতে চায় তাদের শক্ত হাতে জবাব দেব।

এবিষয়ে সহকারী প্রোক্টর আমজাদ হোসেন বলেন, ওদের ব্যানারে শুধু প্রশাসন ভবনের সামনে অবস্থানের ব্যাপারটি উল্লেখ ছিল। ভিসির কার্যালয়ের সামনে অবস্থান করার বিষয়টি আমার বোধগম্য হয়নি। ভিসি উক্ত ফোয়ারা ও পানির প্লান্ট সংস্কারের জন্য প্রকৌশলীকে নির্দেশ দিয়েছেন।

মানববন্ধন শেষে শিক্ষার্থীরা উপাচার্যের কার্যালয়ে যেতে চাইলে প্রক্টরিয়াল বডি তদেরকে বাধা দেন। এসময় প্রক্টরিয়াল বডির সাথে বাকবিতন্ডায় জড়ান মানববন্ধনকারীরা। ২৪ ঘন্টার মধ্যে সমস্যা সমাধান না হলে কঠোর আন্দোলনের হুমকি দেওয়া হয়।