ঢাকা ০৫:৩৮ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২৫ মে ২০২৪

ভারতীয় পণ্য বর্জনের ডাকে যুক্ত হতে চায় না বিএনপি

গণমুক্তি ডিজিটাল ডেস্ক
  • আপডেট সময় : ১২:৩৪:৫৩ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৭ মার্চ ২০২৪ ১১৫ বার পড়া হয়েছে

সম্প্রতি বিএনপি নেতা রিজভীর গায়ে থাকা ভারতের শাল ছুড়ে ফেলেন : ছবি সংগ্রহ

দৈনিক গনমুক্তি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

 

ভারতীয় পণ্য বর্জনের যে কথা বলা হচ্ছে, তাকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের আন্দোলন ও সাধারণ মানুষের ক্ষোভের বহিঃপ্রকাশ বলে মনে করেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির বেশির ভাগ নেতা। তারা মনে করেন, নানা কারণে সাধারণ মানুষ ভারতের আচরণে ক্ষুব্ধ। সেই ক্ষোভ থেকে ভারতীয় পণ্য বর্জনের ডাক দিয়েছে।

বৈঠকে দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান বলেন, এটি দলীয় কোনো সিদ্ধান্ত নয়, ব্যক্তিগত। এই ধরনের আন্দোলনে বিএনপির যুক্ত হওয়া উচিত হবে না। তারা বলেন, বিএনপি অনেক বার রাষ্ট্র ক্ষমতায় থেকেছে। ভবিষ্যতেও দলীয় রাষ্ট্র ক্ষমতায় আসবে। ভারতের ওপর সাধারণ মানুষের ক্ষোভের সঙ্গে দলীয় ভাবে জড়ানোর কোনো কারণ থাকতে পারে না। কেননা আগামীতে বিএনপি ক্ষমতায় গেলে তখন প্রতিবেশী দেশটির সঙ্গে সম্পর্ক কীভাবে নিরূপণ হবে।

মঙ্গলবার গুলশানে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সভায় ভারতীয় পণ্য বর্জনের ডাকে দলের যুক্ত হওয়া ঠিক হবে কি না, তা নিয়ে আলোচনা শুরু হলে দলের কয়েকজন নেতা এমন মনোভাব ব্যক্ত করেন। বৈঠকে উপস্থিত বিএনপির এক নেতা বলেন, অল্প কিছু সময় এ বিয়য়টি নিয়ে আলোচনা হয়েছে। তবে কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি।

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী সংবাদমাধ্যমকে বলেন, বৈঠকে অনেক বিষয়েই আলোচনা হয়েছে। তবে কোনো বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হয়নি। আগামী বৈঠক পর্যন্ত বেশ কিছু ইস্যুতে দলের অবস্থান চূড়ান্ত করা হবে।

বৈঠকে উপস্থিত একটি সূত্রের খবর, ভারতীয় পণ্য বর্জন নিয়ে মূলত আলোচনার সূত্রপাত দলের জ্যৈষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী আহমেদের একটি কর্মকান্ড নিয়ে। বৈঠকে এক নেতা প্রশ্ন করেন রিজভীর ভারতীয় পণ্য বর্জনের যে ঘোষণা, তা কি দলীয় সিদ্ধান্তে। আর সিদ্ধান্তে হলে সেটা কোথায় হয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

ভারতীয় পণ্য বর্জনের ডাকে যুক্ত হতে চায় না বিএনপি

আপডেট সময় : ১২:৩৪:৫৩ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৭ মার্চ ২০২৪

 

ভারতীয় পণ্য বর্জনের যে কথা বলা হচ্ছে, তাকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের আন্দোলন ও সাধারণ মানুষের ক্ষোভের বহিঃপ্রকাশ বলে মনে করেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির বেশির ভাগ নেতা। তারা মনে করেন, নানা কারণে সাধারণ মানুষ ভারতের আচরণে ক্ষুব্ধ। সেই ক্ষোভ থেকে ভারতীয় পণ্য বর্জনের ডাক দিয়েছে।

বৈঠকে দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান বলেন, এটি দলীয় কোনো সিদ্ধান্ত নয়, ব্যক্তিগত। এই ধরনের আন্দোলনে বিএনপির যুক্ত হওয়া উচিত হবে না। তারা বলেন, বিএনপি অনেক বার রাষ্ট্র ক্ষমতায় থেকেছে। ভবিষ্যতেও দলীয় রাষ্ট্র ক্ষমতায় আসবে। ভারতের ওপর সাধারণ মানুষের ক্ষোভের সঙ্গে দলীয় ভাবে জড়ানোর কোনো কারণ থাকতে পারে না। কেননা আগামীতে বিএনপি ক্ষমতায় গেলে তখন প্রতিবেশী দেশটির সঙ্গে সম্পর্ক কীভাবে নিরূপণ হবে।

মঙ্গলবার গুলশানে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সভায় ভারতীয় পণ্য বর্জনের ডাকে দলের যুক্ত হওয়া ঠিক হবে কি না, তা নিয়ে আলোচনা শুরু হলে দলের কয়েকজন নেতা এমন মনোভাব ব্যক্ত করেন। বৈঠকে উপস্থিত বিএনপির এক নেতা বলেন, অল্প কিছু সময় এ বিয়য়টি নিয়ে আলোচনা হয়েছে। তবে কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি।

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী সংবাদমাধ্যমকে বলেন, বৈঠকে অনেক বিষয়েই আলোচনা হয়েছে। তবে কোনো বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হয়নি। আগামী বৈঠক পর্যন্ত বেশ কিছু ইস্যুতে দলের অবস্থান চূড়ান্ত করা হবে।

বৈঠকে উপস্থিত একটি সূত্রের খবর, ভারতীয় পণ্য বর্জন নিয়ে মূলত আলোচনার সূত্রপাত দলের জ্যৈষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী আহমেদের একটি কর্মকান্ড নিয়ে। বৈঠকে এক নেতা প্রশ্ন করেন রিজভীর ভারতীয় পণ্য বর্জনের যে ঘোষণা, তা কি দলীয় সিদ্ধান্তে। আর সিদ্ধান্তে হলে সেটা কোথায় হয়েছে।