ঢাকা ০৪:৫৬ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২৫ মে ২০২৪

ভারতীয় পণ্য বর্জনের নামে বিএনপি অর্জনকে ধ্বংস করতে চায়: সেতুমন্ত্রী

গণমুক্তি ডিজিটাল ডেস্ক
  • আপডেট সময় : ০২:১৮:০৫ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৫ মার্চ ২০২৪ ২৮৪ বার পড়া হয়েছে
দৈনিক গনমুক্তি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

 

ভারতীয় পণ্য বর্জনের নামে বিএনপি দেশের অর্জনকে ধ্বংস করতে চায় বলে মন্তব্য করেছেন, আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

রোববার সচিবালয়ে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে বাস র‌্যাপিড ট্রানজিট (বিআরটি, এয়ারপোর্ট-গাজীপুর) প্রকল্পের সওজ অংশের আওতায় ৭টি ফ্লাইওভার উন্মুক্তকরণ অনুষ্ঠানে এ কথা বলেন।

পণ্য বর্জন সম্ভব কিনা এমন প্রশ্ন তুলে ওবায়দুল কাদের বলেন, বাংলাদেশ ও ভারতের যে অবস্থা, নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসপত্রের যে লেনদেন, যে আদান-প্রদান হয়ে থাকে, তার মধ্যে এমন বর্জনের প্রস্তাব বাস্তব সম্মত কিনা! আসলে তারা ভারতীয় পণ্য বর্জনের নামে দেশের অর্জনকে ধ্বংস করতে চায়।

কাদের বলেন, বিএনপি নেতারা ব্যর্থতার জন্য নিজেরাই ক্লান্ত, তাদের কর্মীরা হতাশ। নেতাদের কারও সঙ্গে কারও কথার মিল দেখি না। মঈন খান ভারতের সহযোগিতা চান, রিজভী আবার ভারতীয় পণ্য বর্জনের ডাক দেন।

তরুণ প্রজন্মকে সামরিক প্রশিক্ষণ দেওয়ার বিষয়ে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান মেজর (অব) হাফিজ উদ্দিন আহমদ বীরবিক্রমের বক্তব্যের জবাবে কাদের বলেন, বিএনপি আন্দোলন করার লোক পায় না, সামরিক প্রশিক্ষণ কাকে দেবে। এটি প্রতারণাপূর্ণ একটি কৌশল। আসলে দলটির নেতারা একেকজনে একেক কথা বলেন। আমরা শুনতে চাই দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর কী বলেন?

এবার ঈদযাত্রা পুরোপুরি স্বস্তিদায়ক হবে বলে আশা করেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

ভারতীয় পণ্য বর্জনের নামে বিএনপি অর্জনকে ধ্বংস করতে চায়: সেতুমন্ত্রী

আপডেট সময় : ০২:১৮:০৫ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৫ মার্চ ২০২৪

 

ভারতীয় পণ্য বর্জনের নামে বিএনপি দেশের অর্জনকে ধ্বংস করতে চায় বলে মন্তব্য করেছেন, আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

রোববার সচিবালয়ে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে বাস র‌্যাপিড ট্রানজিট (বিআরটি, এয়ারপোর্ট-গাজীপুর) প্রকল্পের সওজ অংশের আওতায় ৭টি ফ্লাইওভার উন্মুক্তকরণ অনুষ্ঠানে এ কথা বলেন।

পণ্য বর্জন সম্ভব কিনা এমন প্রশ্ন তুলে ওবায়দুল কাদের বলেন, বাংলাদেশ ও ভারতের যে অবস্থা, নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসপত্রের যে লেনদেন, যে আদান-প্রদান হয়ে থাকে, তার মধ্যে এমন বর্জনের প্রস্তাব বাস্তব সম্মত কিনা! আসলে তারা ভারতীয় পণ্য বর্জনের নামে দেশের অর্জনকে ধ্বংস করতে চায়।

কাদের বলেন, বিএনপি নেতারা ব্যর্থতার জন্য নিজেরাই ক্লান্ত, তাদের কর্মীরা হতাশ। নেতাদের কারও সঙ্গে কারও কথার মিল দেখি না। মঈন খান ভারতের সহযোগিতা চান, রিজভী আবার ভারতীয় পণ্য বর্জনের ডাক দেন।

তরুণ প্রজন্মকে সামরিক প্রশিক্ষণ দেওয়ার বিষয়ে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান মেজর (অব) হাফিজ উদ্দিন আহমদ বীরবিক্রমের বক্তব্যের জবাবে কাদের বলেন, বিএনপি আন্দোলন করার লোক পায় না, সামরিক প্রশিক্ষণ কাকে দেবে। এটি প্রতারণাপূর্ণ একটি কৌশল। আসলে দলটির নেতারা একেকজনে একেক কথা বলেন। আমরা শুনতে চাই দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর কী বলেন?

এবার ঈদযাত্রা পুরোপুরি স্বস্তিদায়ক হবে বলে আশা করেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী।