ঢাকা ১২:৪১ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২০ মে ২০২৪

স্বাধীনতা দিবসে সীমান্তে ২ বাংলাদেশি হতাহতের ঘটনায় ফখরুলের নিন্দা

গণমুক্তি ডিজিটাল ডেস্ক
  • আপডেট সময় : ০৬:৫০:২৮ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৭ মার্চ ২০২৪ ১১৮ বার পড়া হয়েছে
দৈনিক গনমুক্তি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

 

স্বাধীনতা দিবসে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনীর (বিএসএফ) গুলিতে দুই বাংলাদেশি হতাহতের ঘটনায় নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

বুধবার (২৭ মার্চ) বিবৃতিতে মির্জা ফখরুল বলেন, সীমান্তে এক বাংলাদেশিকে গুলি করে হত্যা ও আর একজনকে গুলি করে ধরে নিয়ে যাওয়ার পরও সরকার ও তাদের মন্ত্রীরা নিশ্চুপ। প্রতিবাদ বা কোনো পদক্ষেপ নেওয়া দূরে থাক টু শব্দটিও পর্যন্ত তারা করেনি বরং মন্ত্রীরা নির্বিকারভাবে এ সমস্ত রক্তাক্ত ঘটনা মেনে নিচ্ছেন।

বিবৃতিতে মির্জা ফখরুল আরও বলেন, সরকারের নতজানু নীতির কারণে বাংলাদেশি নাগরিকদের জীবন নিরাপত্তাহীন। ক্ষমতার জন্য এরা দেশের স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্ব দুর্বল করতে দ্বিধা করে না।

বিএনপি মহাসচিব বিবৃতিতে বলেন, সরকার ক্ষমতার ধরে রাখতে দেশকে জিম্মি করে ফেলেছে। তারা ক্ষমতা ধরে রাখতে সব কিছু উজাড় করে দিলেও দেশের মানুষ এক বিন্দু ছাড় দেবে না। দলমত নির্বিশেষে সবাইকে সীমান্তে বাংলাদেশি হত্যার বিরুদ্ধে সোচ্চার হতে হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

স্বাধীনতা দিবসে সীমান্তে ২ বাংলাদেশি হতাহতের ঘটনায় ফখরুলের নিন্দা

আপডেট সময় : ০৬:৫০:২৮ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৭ মার্চ ২০২৪

 

স্বাধীনতা দিবসে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনীর (বিএসএফ) গুলিতে দুই বাংলাদেশি হতাহতের ঘটনায় নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

বুধবার (২৭ মার্চ) বিবৃতিতে মির্জা ফখরুল বলেন, সীমান্তে এক বাংলাদেশিকে গুলি করে হত্যা ও আর একজনকে গুলি করে ধরে নিয়ে যাওয়ার পরও সরকার ও তাদের মন্ত্রীরা নিশ্চুপ। প্রতিবাদ বা কোনো পদক্ষেপ নেওয়া দূরে থাক টু শব্দটিও পর্যন্ত তারা করেনি বরং মন্ত্রীরা নির্বিকারভাবে এ সমস্ত রক্তাক্ত ঘটনা মেনে নিচ্ছেন।

বিবৃতিতে মির্জা ফখরুল আরও বলেন, সরকারের নতজানু নীতির কারণে বাংলাদেশি নাগরিকদের জীবন নিরাপত্তাহীন। ক্ষমতার জন্য এরা দেশের স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্ব দুর্বল করতে দ্বিধা করে না।

বিএনপি মহাসচিব বিবৃতিতে বলেন, সরকার ক্ষমতার ধরে রাখতে দেশকে জিম্মি করে ফেলেছে। তারা ক্ষমতা ধরে রাখতে সব কিছু উজাড় করে দিলেও দেশের মানুষ এক বিন্দু ছাড় দেবে না। দলমত নির্বিশেষে সবাইকে সীমান্তে বাংলাদেশি হত্যার বিরুদ্ধে সোচ্চার হতে হবে।