ঢাকা ১২:২৪ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০২৪
সংবাদ শিরোনাম ::

বিরল রোগে মারা গেছেন আমিরের ‘দঙ্গল’ কন্যা

বিনোদন ডেস্ক 
  • আপডেট সময় : ১২:৩০:১৪ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ ২০৬ বার পড়া হয়েছে
দৈনিক গনমুক্তি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

আমির খান অভিনীত ‘দঙ্গল’ সিনেমায় শিশু ববিতা চরিত্রে অভিনয় করেন সুহানি ভাটনাগর। শনিবার (১৭ ফেব্রুয়ারি) ১৯ বছর বয়সে মারা যান তিনি। এরপর ভারতীয় গণমাধ্যম দাবি করে, ভুল চিকিৎসার কারণে সুহানির মৃত্যু হয়েছে। তারপর থেকে বিষয়টি জোর চর্চায় পরিণত হয়েছে।

এদিকে ভারতীয় সংবাদ সংস্থাকে সুহানির বাবা সুমিত ভাটনাগর জানিয়েছেন, ভুল চিকিৎসা নয়, বরং বিরল রোগ ডার্মাটোমায়োসাইটিসে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন সুহানি। ঘটনার বর্ণনা দিয়ে সুমিত ভাটনাগর বলেন, ‘দুই মাস আগে সুহানির হাতে লাল দাগ বাড়তে থাকে। আমরা ভেবেছিলাম, এটি অ্যালার্জির সমস্যা। এরপর চিকিৎসকের সঙ্গে যোগাযোগ করি। ফরিদাবাদের একাধিক হাসপাতালে চিকিৎসককে দেখাই, কিন্তু কোনো রোগ নির্ণয় করতে পারেননি। তার শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে অল ইন্ডিয়া ইনস্টিটিউট অব মেডিক্যাল সায়েন্সে (এআইআইএম) ভর্তি করাই। কিন্তু সেখানেও তার কোনো উন্নতি হচ্ছিল না। বরং অতিরিক্ত পানি জমার ফলে তার শ্বাসতন্ত্র ক্ষতিগ্রস্ত হয়। পরে তাকে ভেন্টিলেটর সাপোর্টে রাখা হলেও কাজ হয়নি। ডার্মাটোমায়োসাইটিস একটি বিরল রোগ, যেটি মাংসপেশী দুর্বল করে দেয় এবং চামড়ায় ফুসকুড়ি ওঠে। সুমিত ভাটনাগরের দাবি— পৃথিবীতে ৫-৬ জন ব্যক্তির শরীরে এই রোগ শনাক্ত হয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপলোডকারীর তথ্য
ট্যাগস :

বিরল রোগে মারা গেছেন আমিরের ‘দঙ্গল’ কন্যা

আপডেট সময় : ১২:৩০:১৪ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

আমির খান অভিনীত ‘দঙ্গল’ সিনেমায় শিশু ববিতা চরিত্রে অভিনয় করেন সুহানি ভাটনাগর। শনিবার (১৭ ফেব্রুয়ারি) ১৯ বছর বয়সে মারা যান তিনি। এরপর ভারতীয় গণমাধ্যম দাবি করে, ভুল চিকিৎসার কারণে সুহানির মৃত্যু হয়েছে। তারপর থেকে বিষয়টি জোর চর্চায় পরিণত হয়েছে।

এদিকে ভারতীয় সংবাদ সংস্থাকে সুহানির বাবা সুমিত ভাটনাগর জানিয়েছেন, ভুল চিকিৎসা নয়, বরং বিরল রোগ ডার্মাটোমায়োসাইটিসে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন সুহানি। ঘটনার বর্ণনা দিয়ে সুমিত ভাটনাগর বলেন, ‘দুই মাস আগে সুহানির হাতে লাল দাগ বাড়তে থাকে। আমরা ভেবেছিলাম, এটি অ্যালার্জির সমস্যা। এরপর চিকিৎসকের সঙ্গে যোগাযোগ করি। ফরিদাবাদের একাধিক হাসপাতালে চিকিৎসককে দেখাই, কিন্তু কোনো রোগ নির্ণয় করতে পারেননি। তার শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে অল ইন্ডিয়া ইনস্টিটিউট অব মেডিক্যাল সায়েন্সে (এআইআইএম) ভর্তি করাই। কিন্তু সেখানেও তার কোনো উন্নতি হচ্ছিল না। বরং অতিরিক্ত পানি জমার ফলে তার শ্বাসতন্ত্র ক্ষতিগ্রস্ত হয়। পরে তাকে ভেন্টিলেটর সাপোর্টে রাখা হলেও কাজ হয়নি। ডার্মাটোমায়োসাইটিস একটি বিরল রোগ, যেটি মাংসপেশী দুর্বল করে দেয় এবং চামড়ায় ফুসকুড়ি ওঠে। সুমিত ভাটনাগরের দাবি— পৃথিবীতে ৫-৬ জন ব্যক্তির শরীরে এই রোগ শনাক্ত হয়েছে।