ঢাকা ০২:১৯ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৪ জুলাই ২০২৪

সোনারগাঁয়ে নির্বাচনী সহিংসতায় নিহত ১

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৮:৪৫:১৬ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১০ মার্চ ২০২৪ ১৮১ বার পড়া হয়েছে
দৈনিক গনমুক্তি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

 

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ে নির্বাচনী সহিংসতায় হৃদয় ভূঁইয়া (২৩) নামে এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে। শনিবার এখানের একটি ওয়ার্ডে উপনির্বাচন ঘিরে সহিংতার ঘটনা ঘটে।

পুলিশ বলছে, শনিবার (৯ মার্চ) বিকেলে উপজেলার পিরোজপুর ইউনিয়নের দুধঘাটা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রের বাইরে নির্বাচনী ফলাফল প্রকাশকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষেও ঘটনায় এক ব্যক্তি মৃত্যু হয়েছে।

নিহত হৃদয় ভূইয়া দুঘঘাটা গ্রামের আমির আলী ভূইয়ার ছেলে। তিনি নির্বাচনী প্রতিদ্বন্দ্বী কায়সার আহম্মেদ রাজুর সমর্থক। ঘটনার পর ওই এলাকা পুরুষশূন্য হয়ে পড়েছে।

পিরোজপুর ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ডে উপ-নির্বাচনে নির্বাচনে মোরগ প্রতীকে আব্দুল আজিজ সরকার ও তালা প্রতীকে কায়সার আহম্মেদ রাজু প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন।

ভোটগ্রহণ শেষে আজিজ সরকার মোরগ প্রতীকে ৯২৯ ভোট ও তালা প্রতীকে কায়সার আহম্মেদ রাজু ৮১১ ভোট পান।

এ সময় ফলাফল জানার পর কেন্দ্রের প্রিসাইর্ডিং কর্মকর্তা মিজানুর রহমানকে পুনরায় ভোট গণনার অনুরোধ করেন। পুনরায় ভোট গণনা করে রাজুর পক্ষে এক ভোট যুক্ত হলে তৃতীয় দফা ভোট গনণার জন্য চাপ প্রয়োগ করা হয় এবং
নির্বাচনী দায়িত্বে থাকা লোকজনকে উপজেলায় আসতে বাধা দেওয়া হয়।

এ সময় পুলিশ ও দুই প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া, ইট পাটকেল নিক্ষেপ শুরু হলে পুলিশ ও আনসার সদস্যরা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে ফাঁকা গুলি, রাবার বুলেট, টিয়ার সেল ছোঁড়ে।

এসময় রাজুর সমর্থক দুধঘাটা গ্রামের হৃদয় ভূঁইয়া ও ওমর ফারুক (২৭) গুলিবিদ্ধসহ বেশ কয়েকজন আহত হন। তাদের হাসপাতালে নেওয়ার পথে হৃদয় ভূঁইয়া মারা যান

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

সোনারগাঁয়ে নির্বাচনী সহিংসতায় নিহত ১

আপডেট সময় : ০৮:৪৫:১৬ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১০ মার্চ ২০২৪

 

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ে নির্বাচনী সহিংসতায় হৃদয় ভূঁইয়া (২৩) নামে এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে। শনিবার এখানের একটি ওয়ার্ডে উপনির্বাচন ঘিরে সহিংতার ঘটনা ঘটে।

পুলিশ বলছে, শনিবার (৯ মার্চ) বিকেলে উপজেলার পিরোজপুর ইউনিয়নের দুধঘাটা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রের বাইরে নির্বাচনী ফলাফল প্রকাশকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষেও ঘটনায় এক ব্যক্তি মৃত্যু হয়েছে।

নিহত হৃদয় ভূইয়া দুঘঘাটা গ্রামের আমির আলী ভূইয়ার ছেলে। তিনি নির্বাচনী প্রতিদ্বন্দ্বী কায়সার আহম্মেদ রাজুর সমর্থক। ঘটনার পর ওই এলাকা পুরুষশূন্য হয়ে পড়েছে।

পিরোজপুর ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ডে উপ-নির্বাচনে নির্বাচনে মোরগ প্রতীকে আব্দুল আজিজ সরকার ও তালা প্রতীকে কায়সার আহম্মেদ রাজু প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন।

ভোটগ্রহণ শেষে আজিজ সরকার মোরগ প্রতীকে ৯২৯ ভোট ও তালা প্রতীকে কায়সার আহম্মেদ রাজু ৮১১ ভোট পান।

এ সময় ফলাফল জানার পর কেন্দ্রের প্রিসাইর্ডিং কর্মকর্তা মিজানুর রহমানকে পুনরায় ভোট গণনার অনুরোধ করেন। পুনরায় ভোট গণনা করে রাজুর পক্ষে এক ভোট যুক্ত হলে তৃতীয় দফা ভোট গনণার জন্য চাপ প্রয়োগ করা হয় এবং
নির্বাচনী দায়িত্বে থাকা লোকজনকে উপজেলায় আসতে বাধা দেওয়া হয়।

এ সময় পুলিশ ও দুই প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া, ইট পাটকেল নিক্ষেপ শুরু হলে পুলিশ ও আনসার সদস্যরা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে ফাঁকা গুলি, রাবার বুলেট, টিয়ার সেল ছোঁড়ে।

এসময় রাজুর সমর্থক দুধঘাটা গ্রামের হৃদয় ভূঁইয়া ও ওমর ফারুক (২৭) গুলিবিদ্ধসহ বেশ কয়েকজন আহত হন। তাদের হাসপাতালে নেওয়ার পথে হৃদয় ভূঁইয়া মারা যান